সেরা কয়েকটি ফটো এডিটর অ্যাপস

আজকাল মোবাইলে ফটো তুলা বা ফটোগ্রাফি অনেক বেশি জনপ্রিয়। পাশাপাশি যেমন বাড়ছে মোবাইল ফোনের ক্যামেরা কোয়ালিটি তেমন ই বাড়ছে এর চাহিদা। প্রত্যেকের পকেটেই এখন রয়েছে উচ্চতর পিক্সেল ও AI ক্যামেরা ফোন। এসব ছবির এডিট করার জন্যে প্রয়োজন হয় ফটো এডিটর অ্যাপস ।

প্রতিটা মুহুর্ত ক্যামেরায় ধারন থেকে ব্লগিং, ইউটিউব, ওয়েবসাইট, সোশাল মিডিয়া সবকিছুতেই রয়েছে ভালো মানের ছবির চাহিদা।

প্রিয় ছবিগুলো ঘষামাঝা করে উপস্থাপন করা হয় আরো আকর্ষনীয় ভাবে।

এতে দরকার হয় ভালো মানে ফটো এডিটর। নিচের সেরা কয়েকটি ফটো এডিটর থেকে একটি বেছে নিতে পারেন আপনার জন্য।

Snapseed

তালিকার প্রথমেই থাকছে গুগল এর ফটো এডিটর অ্যাপস স্নাপসিড। আইওএস ও অ্যান্ড্রয়েড দুটি ফ্ল্যাটফর্মের জন্যই রয়েছে এই ফ্রি অ্যাপসটি।

স্ন্যাপসিড ব্যবহারকারীরা swiping ব্যবহার করে ছবি সম্পাদনা করতে পারবেন।পাশাপাশি ব্যবহারকারীরা রঙ এবং বিপরীতে একটি “স্বয়ংক্রিয়” সামঞ্জস্যের বিকল্প বেছে নিতে পারেন।

এতে এডিট হিষ্টোরি সেভ করে পুনরায় সেখান থেকে শুরু করা যাবে।

আরো পড়ুনঃ  আসছে অ্যাপলের নিজস্ব সার্চ ইন্জিন

এটি ডিফল্ট ফিল্টার এবং সম্পাদনা বৈশিষ্ট্য ব্যবহার করে ফিল্টার সংমিশ্রণগুলি তৈরি এবং সংরক্ষণ করতে পারে। বিশেষ প্রভাব এবং ফিল্টারগুলির তালিকার মধ্যে নাটক, গ্রঞ্জ, ভিনটেজ, কেন্দ্র-ফোকাস, ফ্রেম এবং একটি টিল্ট শিফট (যা ফটোগুলি পুনরায় আকার দেয়) অন্তর্ভুক্ত।

ব্যবহারকারীরা ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রামের মতো সামাজিক যোগাযোগের সাইটগুলিতে ছবিগুলি সরাসরি শেয়ার করতে পারেন।

Pixlr

পিক্সলার কে প্রায়ই এডোবি ফটোশপের সাথে তুলনা করা হয়, তবে সত্য, এই তুলনাটি পিক্সলারের সাথে অত্যন্ত অন্যায় হতে পারে।

ফটো এডিটিংয়ের ক্ষেত্রের অনেক বিশেষজ্ঞই বলে থাকবেন যে পিক্সলারের ফাংশনগুলো এডোবি ফটোশপের মত।

পার্থক্যটি হল অ্যাডোবের চেয়ে পিক্স্লারের ব্যাবহার করা অনেক সহজ।

PicsArt

পিক্সার্ট ফটো এডিটর অ্যাপস এর মাধ্যমে কিভাবে প্রো এডিটিং করতে হয় তা শিখতে পারেন।

আপনি যদি এমন কোনও সহজ ফটো এডিটিং অ্যাপ্লিকেশন খুঁজেন যা দুটি ছবি এক সাথে মিশ্রিত করতে, স্টিকার যুক্ত করতে, কুল ফিল্টার যুক্ত করতে এবং শৈল্পিক চেহারা তৈরি করতে পারে তবে পিক্সআর্ট সম্পাদক আপনার জন্য উপযুক্ত অ্যাপ্লিকেশন।

আরো পড়ুনঃ  এন্টার্কটিকা মহাদেশের ২০ টি অজানা তথ্য

Inshot

ইনশট হ’ল একটি ফ্রি এইচডি পূর্ণ পর্দার ভিডিও সম্পাদক এবং ভিডিও কাটার। আপনি ভিডিওটি সহজেই ক্রপ করতে পারেন এবং গুণমানকে না হারিয়ে এটিকে রফতানি করতে পারেন এবং আপনার ভিডিওগুলি এক ক্লিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাগ করে নিতে পারেন, বা সঙ্গীত দিয়ে ভিডিও সম্পাদনা করতে এবং টিক টকের জন্য ছবি তুলতে পারেন।

Photo Lab

ফটো ল্যাব একটি স্টাইলিশ এবং মজাদার ফটো এডিটর। এতে এখন পর্যন্ত ৯০০ টির ও বেশি ডিজাইন যুক্ত করা হয়েছে!

চমত্কার মুখের ফটো মন্টেজ, ফটো ফ্রেম, অ্যানিমেটেড ইফেক্ট এবং ফটো ফিল্টার এখানে উপভোগ করার জন্য রয়েছে।

শেয়ার করুনঃ