রাতটা আরো দীর্ঘ হোক- পর্ব ২

মায়ের কপালে হাত রেখে জানতে চাইলাম আবার কেমন লাগছে এখন । মায়ের ঠোটে অনেক কথা আমি জানি । অনেক অনেক কথা ।


আমি এটাওটা বলেই যাচ্ছি আর মা ঘুমায় । বসে আছি আমি তারপরও । কেন জানি এই মহিলাকে আমার অনেক প্রিয় মনে হয় । অনেকটা অপরিষ্কার , গায়ে দুর্গন্ধ তবুও বসে থাকতেই ভালো লাগছে ।

এক সময় ভাবতাম ছোটরা বড় হয় দিন দিন আর যারা বড় হয়ে গেছে তারা ছোট হয় আস্তে আস্তে ।

সত্যিই মা কেমন আমার পাশে বাচ্চাদের মত ঘুমাচ্ছে । দিব্যি আরামে । কোন রকম অভিযোগ নেই ।

প্রথম পর্ব- রাতটা আরো দীর্ঘ হোক

বেঁচে আছে এতেই বুঝি অনেক খুশি । মশায় খেলো নাকি পিঁপড়ায় খেলো কিচ্ছুতেই কিছু যায় আসে না । খানিকটা চোখ বন্ধ থাকলেই যেন শান্তি । কেউ নেই মায়ের দেখাশুনা করার । কিন্তু আমি বসে বসে মাকে পাহারা দিচ্ছি ।

আরো পড়ুনঃ  দ্বিতীয় ছায়া

আমি সত্যিই বড় হয়ে গেছি অনেক। মা কত রাত এভাবে আমাকে পাহারা দিয়েছে জানি না । আমি সত্যিই বড় হয়ে গেছি মা ।

ঘরের বাতিটা জ্বালালো কে ? 

শিউলি !
ঘুম ভেঙ্গে হয়ত না পেয়ে খুজতে শুরু করেছে ।
মায়ের পাশ থেকে উঠে চললাম আমার ঘরের দিকে । শিউলি খাটের পাশে দাঁড়ানো ।
কোথায় ছিলে ?
এইত এখানেই। মায়ের ঘরে ।
(খাটের পাশে বসলাম আমি)
কয়টা বাজে ?
১২ টা । 

ঘুম ঘুম স্বরে বলল শিউলি । রমণী , ঘুমালে নাকি আর সুন্দর লাগে। শিউলিকেও ওরকমই লাগছে ।

ওর বয়স অনেক কম। একটু পাগলাটে ।ইশারায় বসতে বললাম আমার পাশে ।

-আমাকে বিয়ে কর আফসোস হয়েছে কখনো ?
-ডান হাতটা ধরে বসল শিউলি । না ।।
-বাইরে যাবে ?

শিউলি দরজা খুলে দিল । আমি শিউলির পিছনে । 

বারান্দার বাশের খুঁটিটায় হাত দিয়ে দাড়ালাম আমি । শিউলি আমার সামনে । চুলগুলো এখনো এলোমেলো ।
চোখে চোখ রেখে অনেক দিন পর শিউলির গালে লেগে থাকা চুলে হাত দিলাম । মুখ সরিয়ে নিল খানিকটা ।

আরো পড়ুনঃ  তবুও জীবনে প্রেম আসুক

অদ্ভুত সুন্দর লাগে মেয়েটাকে আমার । শিউলি বুজতে পারছিল মানব মানবির প্রেমের ঢেউ । সময় যেন কাম ভালবাসায় ও সমান তালে ফারাক বাঁধায় ।

ভালোবাসার লেনদেনটা আর হয়ে উঠে না আমার আগের মত ।ইচ্ছে হলেও কারনে অকারনে বলা যায় না ভালোবাসি । বলব বলে ঠিক করেও বলা হয়না ।

আসলে ভালবাসা বাসি মানায় না আমার সাথে । ভালবাসা শুধুই যে আমার কাছে কাম-ভালোবাসা তা কিন্তু নয় । আমার ভালোবাসা এখন শিউলি । শিউলির নরম দুটি হাত ।

একটা আঁচল , যেখানে প্রতিদিন যত্নকরে আমি আমার কষ্টগুলো শুকাই । ভালোবাসা আমায় আধোরাতে আদরে ঘুম ভাঙ্গায় । 

সামনে দাড়িয়ে আছে শিউলি । শিউলির চোখে পুড়ে ছাই হয়ে যেতে ইচ্ছে করে আমার । সবার থেকে আলাদা হয়ে কোন একজায়গায় নিজেদের ঠিকানা বানাতে ইচ্ছে করে ।

সমাজ পরিবার সব বাদ দিয়ে । কে আর কি করবে প্রেমিকেরা ত অসামাজিক ই হয় ।

আরো পড়ুনঃ  আমার খোলা আকাশ