মুখের দুর্গন্ধ দুর করুন ঘরোয়া উপায়ে

মুখের দুর্গন্ধ একদিকে যেমন আত্যবিশ্বাস কমায় অন্যদিকে খুবই অস্বস্থিকর। কারো সামনে কথা বলতে বা প্রাণ খোলে হাসতে হলে বিব্রতবোধ হয়।

আর বর্তমানে দীর্ঘ সময় মাস্ক পড়ে থাকার কারনেও অনেকের মুখে দুর্গন্ধ সৃষ্টি হয়।

ঘরোয়া কিছু পদ্ধতি অনুসরন করলে চিরতরে মুখের দুর্গন্ধ দুর করা সম্ভব। চলুন দেখে নেয়া যাক

ব্রাশ করুন: দিনে কমপক্ষে দুইবার দাঁত ব্রাশ করুন। এমন ভাবে ব্রাশ করুন যাতে করে দাতে জমে থাকা খাদ্যকণা বের হয়ে যায়। দাতের পাশাপাশি জ্বীব পরিষ্কার করুন।

মিন্ট বা হারবাল জাতীয় টুটপেষ্ট ব্যবহার করতে পারেন।

নারিকেল তেল: নারিকেল তেলের অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান দুর্গন্ধ সৃষ্টি করা ব্যাকটেরিয়াদের মারতে সাহায্য করে।

এক চামচ নারিকেল তেল মুখে নিয়ে ভালো করে ৫মিনিট কুলি করুন। তার পর হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন

লেবুর রস: লেবু প্রাকৃতিক ডিটারজেন্ট হিসেবে কাজ করে। এর ভেতরে অ্যাসিডক এলিমেন্ট মুখের ভেতরের জীবানু মেরে ফেলে। ফলে মুখে দুর্গন্ধের সৃষ্টি হয়না।

এক কাপ পানিতে ২ চামচ লেবুর রস মিশিয়ে পান করতে পারেন অথবা সেই পানি দিয়ে ভালো করে কুলকুচি করে ফেলেও দিতে পারেন। 

বেকিং সোডা: প্রতিদিন এক গ্লাস পানিতে অল্প পরিমাণে বেকিং সোডা মিশিয়ে কুলি করুন অথবা সপ্তাহে দুইবার টুটপেষ্টের সাথে বেকিং সোডা মিশিয়ে ব্রাশ করুন।

তবে বেশিক্ষন মুখে রাখবেন না। অতিরিক্ত ব্যবহারে মাড়ির ক্ষতি হতে পারে।

মৌরি: এতে রয়েছে অ্যান্টিবায়োটেরিয়াল প্রোপার্টিজ, যা মুখ গহ্বরে তৈরি হওয়া ব্যাকটেরিয়াগুলো মেরে ফেলে।

যখনই মনে হবে মুখ থেকে গন্ধ বের হচ্ছে, এক মুঠো মৌরি নিয়ে চিবিয়ে নেবেন। তা হলে আর চিন্তা থাকবে না।

এলাচ: একটি এলাচ মুখে পুরে রাখুন। এর সুগন্ধ আপনাকে আত্ববিশ্বাস জোগাবে।

দারুচিনি: মুখের ভেতরে তৈরি হওয়া জীবাণু মেরে ফলতে দারুচিনির কোনো বিকল্প নেই। তাই মুখ থেকে গন্ধ বেরোলেই এক চামচ দারুচিনির পাউডারের সঙ্গে পরিমাণমতো পানি মিশিয়ে গরম করে নিন।

তার পর সেই পানি ছেঁকে নিয়ে কুলকুচি করুণ।

দেখবেন গন্ধ চলে যাবে। 

লবঙ্গ: এতে রয়েছে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল প্রোপাটিজ, যা মুখে গন্ধ তৈরি করা ব্যাকটেরিয়াদের মেরে ফেলে। 

মুখে একটি লবঙ্গ নিয়ে চুসতে থাকুন। দেখবেন গন্ধ একেবারে চলে গেছে।

পুদিনাপাতা: একে প্রাকৃতিক মাউথ ফ্রেশনার বলা যেতে পারে। তাই মুখে গন্ধ হলে ২-৩টি পুদিনাপাতা নিয়ে চিবিয়ে ফেলুন।

শেয়ার করুনঃ
আরো পড়ুনঃ  উচ্চ রক্তচাপ -কেন ও করণীয়